Breaking News
Home / গাজীপুর / কাপাসিয়া / কাপাসিয়ায় বাঁশ কাটা কেন্দ্র করে প্রবাশীকে কুপিয়ে হত্যা

কাপাসিয়ায় বাঁশ কাটা কেন্দ্র করে প্রবাশীকে কুপিয়ে হত্যা

মাহাবুর রহমান, গাজীপুরঃ গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়নের বড়বাড়ি গ্রামে বাঁশ নিয়ে বিরোধের জেরে প্রবাশফের মোবারক কে (৩৬) কুপিয়ে গুরুতর ও রক্তাক্ত জখমের ঘটনা ঘটে। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
১২ নভেম্বর, শনিবার সকাল সাড়ে আট্টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। প্রবাশী মোবারক বড়বাড়ি গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে। অভিযুক্ত ব্যক্তিরা হলেন, মৃত চাঁন্দে আলীর ছেলে আব্দুল লতিফ (৬৫) ও তার দুই ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪৫), হাদিউল ইসলাম (৩২)। তারা সবাই একই বংশের বড়বাড়ি এলাকার বাসিন্দা।
সরেজমিন জানাগেছে, প্রতিবেশী আব্দুল লতিফের রোপিত বাঁশ মোবারকের বসত ঘরের টিনের চালে উপর পরে থাকে এবং টিনের সাথে ভাড়ি খেয়ে বিকট শব্দ হচ্ছিলো দীর্ঘ দিন যাবত। বহুবার বলার পরও বাঁশ কেটে না নেওয়ায় মোবারক নিজেই বাশঁ গুলো কেটে ফেলেন। এতে লতিফ ও তার দুই ছেলে রফিকুল ও হাদিউল মোবারকের সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়ান। একপর্যায়ে তারা বাপ ছেলে নিতজন মোবারকের উপর ঝাঁপিয়ে পরে এবং দাঁড়ালো অস্ত্র দা – ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এতে প্রবাশী মোবারক রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এসময় প্রতিপক্ষরা মোবারকের স্ত্রী রিমির হাতের আঙ্গুল কেটে ফেলে ও বোন শিউলির মাথা ফাটিয়ে দেয়। পরে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার আগেই তিনি মারা যান বলে জানায় মোবারকের পরিবার।

নিহতের বাবা নুরুল ইসলাম দেশবাংলা কে বলেন, ১২ দিন আগে ছেলে মোবারক সৌদি আরব থেকে তিন মাসের ছুটিতে দেশে আসেন। ঘরের চালের উপর পরে থাকা বাশঁ কাটার কারনে ছেলে মোবারক কে দেশীয় দাঁড়ালো অস্ত্র দাও ছুড়ি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। পুত্রবধূ রিমি, মেয়ে শিউলি ও আলমও গুরুতর আহত হচে বলে জানান। তিনি ছেলে হত্যায় জড়িত ভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার ও শাস্তি দাবি করেন।
অভিযুক্ত আব্দুল লতিফ এর বাড়িতে গেলে সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। সবগুলো ঘরে তালা দেওয়া। আশপাশের লোকজন জানিয়েছেন ঘটনার পর থেকে তারা বাড়িতে নেই। কোথায় গেছে তারা জানেন না। বাড়িতে গিয়ে অভিযুক্তদের না পাওয়ায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

কাপাসিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ এফ এম নাসিম বলেন, ঘটনা শুনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছি। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

About admin

Check Also

কাপাসিয়ায় গর্ভবতী মা সমাবেশ অনুষ্ঠিত

কাপাসিয়ায় গর্ভবতী মা সমাবেশ অনুষ্ঠিত কাপাসিয়া প্রতিনিধিঃ কাপাসিয়া উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আজ সকালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.