Breaking News
Home / স্বাস্থ ও চিকিৎসা / ঝিনাইগাতীতে ৭ম শ্রেনীর ছাত্র রাব্বী বাঁচতে চায়!

ঝিনাইগাতীতে ৭ম শ্রেনীর ছাত্র রাব্বী বাঁচতে চায়!

মুহাম্মদ আবু হেলাল, শেরপুর প্রতিনিধি : থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত শেরপুরের ঝিনাইগাতীর ৭ম শ্রেনীর ছাত্র রাব্বী(১৫) বাঁচতে চায়। রাব্বী স্থানীয় আইডিয়াল স্কুলের ৭ম শ্রেনীর ছাত্র এবং উপজেলার প্রতাবনগর গ্রামের কাঠ মিস্ত্রি মো. ফারুক মিয়ার ছেলে। ২ ছেলে মেয়ের মধ্যে রাব্বীই বড়। রাব্বীর পরিবার সুত্রে জানা যায়, রাব্বীর বয়স যথন ৩ বছর, তখন থেকে সে নানান রোগে আক্রান্ত হয়। রাব্বীকে নিয়ে তার বাবা-মা ঝিনাইগাতী, শেরপুর, ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া হয়। পরবর্তীতে ময়মনসিংহ হাসপাতাল থেকে রাব্বীকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। ঢাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ডাক্তারগণ রাব্বীর শারীরিক পরীক্ষার পর তার দেহে থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্তের লক্ষণ পান। এর পরিপ্রেক্ষিতে ডাক্তারগণ রাব্বীকে উন্নত চিকিৎসার মাধ্যমে অপারেশন করতে পরামর্শ প্রদান করেন। অপারেশন করতে বিলম্ব হলে নিয়মিত ঔষধ খাওয়ারও পরামর্শ দেন। এতে প্রতি মাসে রাব্বীকে প্রায় ১০ হাজার টাকার ঔষধ খাওয়াতে গিয়ে রাব্বীর বাবা- মায়ের সহায় সম্বল প্রায় শেষ। অপর দিকে প্রতি ১ মাস অন্তর তার দেহে (বি-পজেটিভ) এক ব্যাগ রক্ত ভরতে খরচ হয় প্রায় ২ হাজার টাকা।

এমতাবস্থায় অর্থের অভাবে অপারেশন করতে না পেরে এবং নিয়ম মাফিক ঔষধ কিনতে না পেরে দিন দিন মৃত্যুের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে রাব্বী। রাব্বীকে বিদেশ নিয়ে অপারেশন করতে প্রায় ১০-১২ লক্ষ টাকার প্রয়োজন। এতো বিশাল অংকের টাকার যোগান দেওয়া দিন-দরিদ্র রাব্বীর পিতা মাতার পক্ষে সম্ভব নয় বিধায় সমাজের বিত্তবান ও অথর্বানদের কাছে হাত বাড়িয়েছেন রাব্বীর বাবা-মা।

যদি কোন হৃদয়বান ব্যক্তি রাব্বীকে সাহায্য করতে চান তবে রাব্বীর মাতা মোছা. রেহানা বেগমের ০১৯১৬-৮৩৪৯৫৭ নম্বরে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করেছেন।

 

About admin

Check Also

কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজ প্রদান শুরু

অধ্যাপক শামসুল হুদা লিটনঃ গাজীপুরের কাপাসিয়ায় কোভিট -১৯ এর টিকা কার্যক্রমের দ্বিতীয় ডোজ প্রদান শুরু …

Leave a Reply

Your email address will not be published.