Home / গাজীপুর / শ্রীপুরের স্কুল দপ্তরীর জমি দখলের পাঁয়তারা

শ্রীপুরের স্কুল দপ্তরীর জমি দখলের পাঁয়তারা

তারেক রহমান জাহাঙ্গীঃ গাজীপুর জেলা শ্রীপুর থানাধীন কেওয়া মৌজা চান্নাপাড়া গ্রামে পূর্ব জুরাইন আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের দপ্তরী মোঃ মকবুল আহম্মেদ, পিতা মরহুম আশ্রাব আলী সাং পশ্চিমে চানদূর, থানা সোনাইমুড়ী, জেলা নোয়াখালী, তিনি ২০০৫ সালে ১০৫৯৯ নং দলিল মূলে ৭ শতাংশ মোঃ আব্দুর রশিদ এর কাছ থেকে দুই দাগে সাবেক এস এ-১৪৬৬ আরএস ২৩৪১,২৩৪৪ দাগে জমি ক্রয় করে নিজ নামে নামজারি করে খাজনা দিয়ে আসছেন। যাহা জোত নং- ৯৫৮৯। আব্দুর রশিদ মারা যাওয়ার পর তার ওয়ারিশগণ বলিতেছে আমাদের ২৩৪১ দাগের জমি নাই আপনাকে ২৩৪৫ দাগ থেকে জমি নিতে হবে ।

এই নিয়ে এলাকায় বহুবার দেন-দরবার হয় বিচারের মধ্যে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেওয়া তমির উদ্দিন আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ শফিকুল ইসলান শামীম বিচারের রায় ঘোষণা করেন দপ্তরী মকবুল কে ২৩৪৫ দাগ থেকে ৭ শতাংশ জমি বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য। আব্দুর রশিদ জমির মালিক ৭.৫০ শতাংশ কিন্তু বিচারক শামীম হুজুর আব্দুর রশিদের ওয়ারিশগন আব্দুস সামাদ কে বলে তোমাদের এখানে ০০. ৫০ শতাংশ জমির বেশি আছে সেটা আমাকে লিখে দাও। আমি এই জমিন দেখিয়ে ব্যাংক থেকে লোন করব এই কথা বলে শামীম হুজুর ৭ শতাংশ জমিন লিখে নেয়। মকবুল গরিব মানুষ টাকা যোগাড় করতে তার সময় লেগে যায় ২ মাস। তারপর আবার মকবুল কে ৭ শতাংশ জমিন লিখে দেয় আব্দুস সামাদ। কিছুদিন পর শামীম হুজুর বাড়ি নির্মাণ কাজ শুরু করেন, বাধা দিতে আসলে সে বলে এটা আমার ত্রুয়কৃত সম্পত্তি কেউ এখানে আসলে খারাপ হবে বলে হুমকি দেয়। কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে দেখা যায় দপ্তরী মকবুল দলিল মুলে ২৩৪১,২৩৪৪ দাগে কাতে ৭ শতাংশের জমির মালিক। কিন্তু তাকে চালাকি করে ২৩৪৫ দাগে দেওয়া হয়েছে যাহা কোন আইনগত বৃক্তি নাই। বর্তমানে ২৩৪৪ দাগে মঈন সরকার জুয়েল(৪০) পিতা-মৃত আব্দুল গফুর সরকার জোরপূর্বক দখল করে আছে। জুয়েলের বড় ভাই জহির বিভিন্ন সময় মোবাইলে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে জমিতে আসলে তাকে এবং তার পরিবারের সদস্যদের রাস্তা-ঘাটে মারধরসহ জানমালের ক্ষয়-ক্ষতি এবং তাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করবে বলিয়া বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসতেছে ।

তাই শ্রীপুর পৌরসভার খরিদা জমিতে শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোগ দখল এবং উক্ত জমিনে কোন প্রকার স্থাপনার নির্মান না করা জন্য ১৮-০২-২০২১ তারিখে আবেদন করেন দপ্তরী মকবুল। মোবাইলে হুমকি দেওয়ার কারনে শ্রীপু থানায় একটি জিডি করেন জিডি নং- ৫৩৯ জিডি তারিখ ১১-০৪-২০২১ জিডিতে উল্লেখ করেন ০৩-০৪-২০২১ তারিখে সন্ধ্যা ৬ টা ১০ মিনিটে সময় উক্ত মোবাইল নাম্বার থেকে ০১৮৮৯১৩৬২৩৮ হইতে দপ্তরী মকবুল কে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করেন। এবং জমি দখল করে নিবে বলে পূর্বের ন্যায় হুমকি দিয়ে ফোন কেটে দেয়। কিন্তু শ্রীপুর পৌরসভা বিচারধীন থাকা অবস্থায় মেয়রের কথিত বিচারক আলী হোসেনের কথায় আংশিক রায় দেওয়া হয়, এই নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।কে এই আলী হোসেন তার খুঁটির জোর কোথায়, তাহলে কি টাকার কাছে বিত্রুয় হয়ে গেলো শ্রীপুর পৌরসভা। দপ্তরী হয়ে কি বিচার পাবে না ? দপ্তরী মকবুল তাহলে কি চোখের পানি ফেলে যাবে । দপ্তরী মকবুলের কান্না কেউ শুনবে না।

About admin

Check Also

তৃতীয় দফায় কাপাসিয়ার ১৬১ টি পরিবার পেলো জমিসহ ঘর

মাহাবুর রহমান, গাজীপুর :: গাজীপুরের কাপাসিয়ায় ভূমিহীন ও গৃহহীন ১৬১ টি পরিবারকে জমিসহ গৃহ হস্তান্তর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.